বাড়ির পথে কোহলির দল! – News Pabna

ফেভারিট হয়ে বিশ্বকাপে গিয়ে লজ্জায় মাথা কাটা যাওয়ার জোগাড় ভারতের! টানা দুই হারে কার্যত সেমিফাইনালের দুয়ার বন্ধ হয়ে গেছে। নানা কঠিন সমীকরণে সে দুয়ার খুলতে পারে, তবে বিরাট কোহলির দলের সেই অঙ্ক মেলানোর সামর্থ্য আছে কি না, তা নিয়েই ঘোরতর সন্দেহ।

ভারতের সামর্থ্য আপাতত কাগজে-কলমে, অনেকখানি আইপিএলে পারফরম্যান্স-জাত। এই টুর্নামেন্টে ব্যাটিং-বোলিংয়ে সেরাদের নিয়ে গড়া দলটির গায়ে লাগিয়ে দেওয়া হয়েছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ফেভারিটের তকমা। কিন্তু বিশ্বকাপে দুই ম্যাচ যেতে না যেতেই পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ড এলেবেলে বানিয়ে দিয়েছে বিরাট কোহলির সেই দলকে। সেই পারফরম্যান্স-জাত বিশ্বাস যে হাওয়াই, সেটা বুঝিয়ে দিয়েছে নিউজিল্যান্ড। নামিদামি ভারতীয় ব্যাটাররা অসহায় আত্মসমর্পণ করেছেন কিউই বোলিংয়ের সামনে। ভারতীয় বংশোদ্ভূত কিউই লেগি ইশ সোধির কাছে মাথা নুইয়েছেন রোহিত শর্মা ও কোহলি। ট্রেন্ট বোল্ট ও সাউদির তোপে বাকিরাও কিছু করতে পারেননি। মাত্র ১১০ রানে গুটিয়ে যাওয়া ভারত আসলে ওখানেই শেষ হয়ে গেছে। ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি মনে করছেন, ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে খেলার কারণেই হয়েছে এই সর্বনাশ, ‘ব্যাটে বা বলে আমরা সাহসী ছিলাম না। শরীরী ভাষায়ও সাহসের লেশমাত্র ছিল না। অথচ নিউজিল্যান্ড শুরু থেকেই আগ্রাসী ক্রিকেট খেলেছে, শরীরী ভাষায়ও তারা আমাদের চেয়ে অনেক এগিয়ে ছিল। ম্যাচের প্রথম বল থেকেই আমাদের ওপর চাপ সৃষ্টি করেছিল। গোটা ইনিংসে সেই চাপ ধরে রেখেছিল।’

প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে হারের পরই তারা চাপে পড়ে গিয়েছিল। পরের ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের কাছে হারলেই টুর্নামেন্ট থেকে একরকম ছুটি হয়ে যাবে—এটাই তাদের মানসিকভাবে পিছিয়ে দিয়েছে। সঠিক শট খেলতে দ্বিধায় ফেলেছে ব্যাটারদের। ৮ উইকেটে এই হারের ময়নাতদন্ত শুরু হয়েছে দেশে, সংক্ষুব্ধ হয়েছে সমর্থকরা। কারণ এই হার যে সেমিফাইনালের দুয়ার প্রায় বন্ধ করে দিয়েছে ভারতের। এর পরও আশার বাতি জ্বালিয়ে রাখতে চান কোহলি, ‘আমাদের ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে খেলতে হবে। হিসাব করে ঝুঁকি নিতে হবে। চাপ কাটিয়ে নিজেদের স্বাভাবিক খেলা খেলতে হবে। এখনো অনেক খেলা বাকি।’ অনেক খেলা বাকি বলে যে বাতিটি তিনি জ্বালিয়ে রাখতে চাইছেন সেটা কিন্তু পুরোপরি ভারতের হাতে নেই। তাদের হাতে আছে তিনটি ম্যাচ—আফগানিস্তান, স্কটল্যান্ড ও নামিবিয়ার বিপক্ষে। এই তিনটি ম্যাচ ভালোভাবে জিততেই হবে। সঙ্গে তাকিয়ে থাকতে হবে আফগানিস্তান-নিউজিল্যান্ড ম্যাচের দিকে। আফগানিস্তান জিতলে তবেই নেট রানরেটের হিসাবে কোহলিদের সেমিফাইনালে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হবে। বাজে ব্যাটিংয়ের কারণে নেট রানরেটে ১২ দলের মধ্যে ভারত ১১ নম্বরে। তাদের নিচে আছে শুধু স্কটল্যান্ড। নামিবিয়া, বাংলাদেশও নেট রানরেটে ভারতের ওপরে।

এমন অবস্থান থেকে ঘুরে দাঁড়ানো এবং সব অঙ্ক মেলানো বড় কঠিন। তাই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেল ভারতীয় অধিনায়কের ১০ বছর আগের এক টুইট, ‘হেরে গিয়ে খুব মন খারাপ হয়েছে। এবার বাড়ি যাচ্ছি।’

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Next News BD Powered By : Code Next IT