১০ লাখ ফিলিস্তিনিকে আটক করেছে ইসরায়েল

১৯৬৭ সালের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের সময় থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ১০ লাখ ফিলিস্তিনিকে আটক করেছে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী। এর মধ্যে দেশটির কারাগারে বন্দী থাকা অবস্থায় মারা গেছেন ২২৬ জন ফিলিস্তিনি।

ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের হিসাব রাখা একটি বেসরকারি সংস্থা (এনজিও) শনিবার এমন তথ্য প্রকাশ করেছে। ডিটেইনি অ্যান্ড এক্স ডিটেইনি (বন্দি এবং সাবেক বন্দি) নামের স্থানীয় এই সংস্থাটির এক বিবৃতির বরাত দিয়ে এমন তথ্য জানিয়েছে তুরস্কের সরকারি বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি।

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে আটক হওয়া ১০ লাখ বন্দীর মধ্যে ৫০ হাজার শিশু এবং ১৭ হাজার নারী রয়েছে। এ ছাড়াও ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ৫৪ হাজার প্রশাসনিক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে দখলদার ইসরায়েল।

এই প্রশাসনিক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা হলো এমন এক নীতি, যার ফলে কোনো বিচার ও অভিযোগ গঠন ছাড়াই গ্রেপ্তারকৃতদের বন্দিত্বের মেয়াদ বাড়াতে পারে ইসরায়েলি প্রশাসন।

এনজিওটির বিবৃতিতে আরও জানানো হয়, ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে যেসব ফিলিস্তিনি গ্রেপ্তার হয়েছেন, তাদের প্রত্যেকেই বিভিন্ন ধরনের শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন এবং নানা নিষ্ঠুর আচরণের অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছেন।

ডিটেইনি অ্যান্ড এক্স ডিটেইনি জানিয়েছে, বর্তমানে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার ফিলিস্তিনি দখলদার ইসরায়েলের কারাগারে বন্দী আছেন। এর মধ্যে ১৪০ শিশু, ৪১ জন নারী এবং ৪৪০ জন প্রশাসনিক আদেশের বন্দী রয়েছেন।

১৯৬৭ সালে ইসরায়েল ও আরব দেশগুলোর মধ্যে সংগঠিত সে যুদ্ধে ফিলিস্তিনের পূর্ব জেরুজালেম ও পশ্চিম তীর, সিরিয়ার গোলান মালভূমি এবং মিশরের সিনাই উপদ্বীপ দখল করে নেয় ইসরায়েল। পরে ১৯৭৯ সালে এক শান্তি চুক্তির পর সিনাই উপদ্বীপ মিশরকে ফেরত দিলেও এখনও ঝামেলা লেগেই আছে বিতর্কিত গোলান মালভূমি নিয়ে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।